Advertisements


আগামীকাল পাওয়া গেল বৃষ্টির সম্ভাবনা। দেশের কোথায় কোথায় বৃষ্টি হতে পারে জেনে নিন?

অনেকেই হয়তো দীর্ঘদিন বৃষ্টি না দেখে বৃষ্টির কথা ভুলে গিয়েছেন! বৃষ্টি দেখতে কেমন হয় তা হয়তো অনেকেরই মনে নেই। দীর্ঘদিন পর অবশেষে কিছু বৃষ্টির দেখা পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ইনশাআল্লাহ। হ্যাঁ ঠিকই পড়েছেন, আগামীকাল ৮ ই ফেব্রুয়ারি দেশের কিছু অংশ বৃষ্টিপাতের দেখা পেতে পারে। তাহলে দেশের কোন অংশে কাল বৃষ্টি হতে পারে? কেমন হতে পারে? ঝড়ের সম্ভাবনা আছে কি? জানুন বিস্তারিত!
.
চলুন প্রথমে দেখে নেই, কি কারনে বৃষ্টি হতে পারে তার কিছু কিছু বিবরণ। মূলত ভূমি ও সাগরের প্রেসার গ্রেডিয়েন্ট এর কারণেই এই বৃষ্টিপাত এর সূচনা হতে পারে। প্রথমে জেনে নেই প্রেসার গ্রেডিয়েন্ট কি? প্রেসার গ্রেডিয়েন্ট হলো দুইটি নির্দিষ্ট অঞ্চলের ভিতর বায়ুর চাপের অস্থায়ী তারতম্য। মূলত বছরের এই সময়ে এসে মাঝে মাঝেই সূর্যের তাপে স্থলভাগ দ্রুত উত্তপ্ত হয়। এতে সাগরের তুলনায় স্থলভাগে দ্রুত তাপমাত্রা জনিত কারনে বায়ুর চাপ হ্রাস পায়। আর এতেই মূলত অস্থায়ী প্রেসার গ্রেডিয়েন্ট সৃষ্টি হয়। বর্তমান সময়ে মূলত একই প্রক্রিয়া ঘটছে।
.
বর্তমানে সাগরের তুলনায় স্থলভাগে দ্রুত বায়ুর চাপ হ্রাস পেতে দেখা যাচ্ছে। এতে উত্তর উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে একটি উচ্চচাপ বলয় সৃষ্টি হচ্ছে। যা দেশের অভ্যন্তরে জলীয়বাষ্প প্রবেশ করাবে। এই জলীয় বাষ্পপূর্ণ বাতাস পশ্চিমা শীতল বাতাসের সাথে মিলিত হয়ে দেশের পূর্বাঞ্চলে এবং উত্তর-পূর্বাঞ্চলে কনভার্জেন্স জোন তৈরি করতে পারে। যার একটি অংশ বরিশাল বিভাগের পূর্বাংশেও থাকতে পারে। এতে এই কনভারজেন্স জোন ধরে কিছু ছোট ছোট মেঘ তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যার মধ্যে কিছু কিছু মেঘ গ্রো আপ করে বৃষ্টিবাহী মেঘে পরিণত হতে পারে।
.
যেসব অঞ্চলে উক্ত বৃষ্টির বাহি মেঘ সৃষ্টির কারণে বৃষ্টিপাতের কিছু সম্ভাবনা রয়েছে সেগুলো হলোঃ সিলেট ও মৌলভীবাজার জেলার বেশ কিছু এলাকায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়া সহ হালকা থেকে মাঝের ধরনের বৃষ্টি বা বজ্র বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে তবে কালবৈশাখীর সম্ভাবনা এখনো পাওয়া যায়নি। সেই সাথে নেত্রকোনা, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা, চাঁদপুর, ফেনী, নোয়াখালী, লক্ষীপুর, পটুয়াখালী জেলা সমূহের ২/১ জায়গায় এবং এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় কিছুটা বৃষ্টিপাত হলেও হতে পারে। উল্লেখিত জেলা সমূহে সর্বোপরি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা কম (১০-২০%) তবে এসব অঞ্চলেও কনভারজেন্স জোন উপস্থিত থাকায় কোথাও কোথাও বৃষ্টিবাহী মেঘ তৈরি হতে পারে। এতে ছোট ছোট কয়েকটি এলাকায় কিছু বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে। এছাড়া বাকি এলাকায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা পাওয়া যায়নি।

নিচের মানচিত্র থেকে দেখে নিন আপনার জেলায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা কেমন? হলুদ রং কম সম্ভাবনা নির্দেশ করে, কমলা রং মাঝারি সম্ভাবনা নির্দেশ করে, এবং লাল রং সর্বাধিক সম্ভাবনা নির্দেশ করে।

Advertisements

Advertisements



Advertisements