Advertisements


ধেয়ে আসছে বৃষ্টি বলয় জুই | ২১-২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

দীর্ঘ বেশ কিছুদিন আপনারা জানতে পেরেছেন যে দেশে একটি বৃষ্টি বলয় আসতে পারে যার আমরা নামকরণ করেছি জুই। তবে উক্ত বৃষ্টি বলয়টি সারা দেশে আসছে না। শুধুমাত্র দেশের একটি নির্দিষ্ট অংশেই এই বৃষ্টি বলয়টি সক্রিয় থাকতে পারে। তাহলে কোথায় কোথায় সক্রিয় থাকতে পারে? কেমন বৃষ্টি হতে পারে সবকিছু জেনে নিন এই আপডেটে।
.
সর্বপ্রথম চলে যাই কিভাবে বৃষ্টিপাত হতে পারে তার কিছু বর্ণনায়। মূলত বৃষ্টি বলয় জুই আসতে পারে লোয়ার লেভেল কনভারজেন্স, প্রেসার গ্রেডিয়েন্ট, আবহাওয়ার ইনডেক্স সমূহ, জলীয় বাষ্পের সাপ্লাই ও অনুকূল জেট স্ট্রিম ইত্যাদির কারণে। প্রেসার গ্রেডিয়েন্ট এর জন্য উত্তর বঙ্গোপসাগরে একটি হাই প্রেসার জোন তৈরি হতে পারে যেটা স্থলভাগের উপর দিয়ে জলীয় বাষ্পের প্রবেশ ঘটাতে পারে। এই জলীয়বাষ্প পূর্ণ বাতাস দেশের উত্তর-পূর্ব অংশে গিয়ে পশ্চিমা শুষ্ক শীতল বাতাসের সাথে মিলিত হয়ে কনভারজেন্স তৈরি করতে পারে। তাই সেখানে বজ্র মেঘ তৈরির পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে। আর এভাবেই দেশের উত্তর পূর্ব অঞ্চলে বৃষ্টি বলয় জুুই চলাকালীন সময়ে মেঘ তৈরি ও বৃষ্টিপাত হতে পারে।
.
উক্ত বৃষ্টি বলয়টি শুরু হতে পারে আগামী একুশে ফেব্রুয়ারি এবং চলতে পারে ২৪ শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এই সময় বৃষ্টি বলয়টি শুধুমাত্র সিলেট বিভাগেই সর্বাধিক সক্রিয় থাকতে পারে। অন্যত্র এর প্রভাব থাকার সম্ভাবনা কম। উল্লেখিত সময় (২১-২৪ ফেব) যেসব জেলা এই বৃষ্টি বলয় দ্বারা প্রভাবিত হতে পারে সেগুলো হলোঃ সিলেট জেলার অধিকাংশ এলাকা এবং সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ জেলার বেশ কিছু এলাকা। সেই সাথে নেত্রকোনা, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, শেরপুর, নরসিংদী, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট ও পঞ্চগড় জেলার ২/১ জায়গায় কিছুটা বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে ইনশাআল্লাহ। অন্যত্র বৃষ্টির সম্ভাবনা পাওয়া যায়নি।
.
উল্লিখিত এলাকাসমূহের মধ্যে সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলায় মাঝারি থেকে ভারী বজ্রবৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।  এবং হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলায় হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এবং অন্যত্র দুই এক জায়গায় হালকা বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এতে সিলেট বিভাগে ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বছরের প্রথম কালবৈশাখী ঝড়েরও সম্ভাবনা রয়েছে। এ সময়ে দেশের আকাশ মূলত আংশিক মেঘলা থাকতে পারে। বৃষ্টি বলয়টির বেশি সক্রিয় স্থানে মেঘের পরিমাণ তুলনামূলক বেশি থাকতে পারে। অন্যত্র রোদের কাজ স্বাভাবিকভাবেই চালানো যেতে পারে। নিচের গ্রাফিকাল চিত্রের মাধ্যমে দেখে নিন কোথায় কেমন সম্ভাবনা
ধন্যবাদ সকলকে, ©Bangladesh Weather Observation Team- BWOT


Advertisements



Advertisements